Home Privacy Policy Disclaimer Sitemap Contact About
রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
অবশেষে মণিরামপুরে লখাইডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৩ কর্মচারী নিয়োগ বোর্ড স্থগিত তালেবান ক্ষমতায় আসায় বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত উৎফুল্ল: কৃষিমন্ত্রী চলে গেলেন প্রফেসর ডা. হাবিবুর রহমান   গোয়েন্দা পুলিশের হাতে ২ মাদক কারবারি গ্রেফতার এসডিজি অর্জনের স্থানীয় প্রতিষ্ঠান সমূহের ভূমিকা শীর্ষক  নোয়াখালীতে নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠিত স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামি ভারতে পালানোর সময় গ্রেপ্তার দুই ডোজ টিকা নিয়েও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার করোনা শনাক্ত ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন টেংরামারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবনির্বাচিত সভাপতি বিনোদ রায় শ্রীলঙ্কা সফরে যাচ্ছে ইয়ং টাইগাররা জিয়ার মরণোক্তর বিচার করা হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান

প্রত্যয়ন পত্র পেতে বিলম্ব হওয়ায় গ্রাম আদালত ভাংচুর করল যুবলীগ নেতা

 নোয়াখালী প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৬ আপডেট পোস্ট

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় প্রত্যয়ন পত্র পেতে দেরি হওয়ায় গ্রাম আদালত ভাংচুর করে আদালত সহকারীকে পিটিয়েছে এক যুবলীগ নেতা। হামলার শিকার গ্রাম আদালত সহকারী নিজাম উদ্দিন মাহমুদ (৪০) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। খবর পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য মামুনুর রশীদ কিরণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

অভিযুক্ত মো.রাসেল আলম আমান উল্যাহপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য ও একই ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের ঘরিয়া গাজী বাড়ির লকিয়ত হোসেনের ছেলে।

গতকাল বুধবার ( ৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার ১নং আমান উল্যাপুর ইউনিয়নের পরিষদ ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে এমন অভিযোগ করেন আমান উল্যাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.আরিফুর রহমান মাহমুদ। তিনি আরও জানান,গ্রাম আদালত সহকারী আমার কক্ষের সামনে বসে। গতকাল বুধবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন ঘরিয়া গাজী বাড়ির রাসেল কার্যালয়ে আসে একটি প্রত্যয়ন পত্রের জন্য।

এ সময় আদালত সহকারী তাকে বলেন আমার হাতে একটু কাজ আছে,আমাকে একটু সময় দেন। এরপর আপনার প্রত্যয়ন পত্রটা দিয়ে দেব। একপর্যায়ে এটা নিয়ে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা বেধে যায়। এ সময় আমি গিয়ে দু’পক্ষকে দুই দিকে সরিয়ে দিয়ে আমার ব্যক্তিগত কাজে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বাহিরে চলে যাই।

আমি কিছু দূর যাওয়ার পর রাসেল তার অনুসারী মেহেদী ও রাজন সহ ৪জন যুবক পুনরায় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এসে আদালত সহকারীকে বেধড়ক মারধর করে এবং গ্রাম আদালতের এজলাস ভাংচুর করে।

এ সময় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে সচিব ছাড়া কেউ ছিলনা। এরপর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। একই দিন বিকেলে এসে তারা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে ককটেল বিস্ফেরণ ঘটিয়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে।

চেয়ারম্যান আরিফ বলেন, এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় আমরা থানায় এখনো কোন লিখিত অভিযোগ করিনি। আমরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আজ পরিষদের সভা ডেকেছি। এ সভা থেকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আমাদের করণীয় সম্পর্কে সিন্ধান্ত নেব। এরপর তাদের বিরুদ্ধে আমরা আইনগত প্রদক্ষেপ গ্রহণ করব।

এ বিষয়ে জানতে বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভি না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এই খবর শেয়ার করে আপনার টাইমলাইনে রেখে দিন Tmnews71

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved  https://tmnews71.com/
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
raytahost-tmnews71